বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
‘হাবিবি’ নিয়ে আসছেন নুসরাত ফারিয়া “এসো নিজেকে নিজে চিনি” পরিবার আয়োজিত বাউল গানের প্রতিযোগিতার গ্রান্ড ফিনালে ২০ অক্টোবর শুধুমাত্র অনুদানের সিনেমা দিয়েই মুখর সিনেপাড়া বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ও স্কটল্যান্ডের সম্ভাব্য একাদশ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দেখা যাবে যেসব চ্যানেলে ‘বাংলাদেশকে আমরা পাপুয়া নিউগিনির চেয়ে ওপরে দেখি না’: স্কটল্যান্ড কোচ শেন বার্জার টি ২০ বিশ্বকাপ ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে আজ শুরু ইভ্যালির ওয়েবসাইট-অ্যাপ বন্ধের ঘোষণা কুমিল্লার ঘটনার পেছনের কারণ খোঁজা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ‘দেশ বিক্রি করে তো আমি ক্ষমতায় আসব না’ এটাই বাস্তব

বাংলাবাজার ফেরিঘাটে পারাপারের অপেক্ষায় হাজারো মানুষ

কাউসার আলম
  • প্রকাশ সময়ঃ শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১
  • ৭৯ বার পড়া হয়েছে

সরেজমিন বেলা দুইটা থেকে তিনটা পর্যন্ত বাংলাবাজার ফেরিঘাট ঘুরে দেখা যায়, দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন জেলার ঢাকামুখী যাত্রীরা ভ্যান, রিকশা, ইজিবাইক, সিএনজি, মাহিন্দ্র, ট্রাক ও ট্রলিতে করে ঘাট এলাকায় প্রবেশ করেছেন। অনেকে গাদাগাদি করে এসব গাড়িতে না উঠে হেঁটেই আসছেন ঘাটে। ঘাট এলাকায় ঢুকতে পুলিশের বাধার মুখে পড়লেও পোশাকশ্রমিক পরিচয় বলায় তাঁদের কোনো প্রকার বাধা দিচ্ছেন না আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ঘাটে এসে যাত্রীরা ফেরি পাচ্ছেন না। ফেরির জন্য তাঁদের পন্টুন ও ঘাটের আশপাশেই ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। ঘাটে ফেরি আসামাত্রই যাত্রীরা হুমড়ি খেয়ে পড়ছেন ওঠার জন্য। যাত্রীদের মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মানার বালাই নেই। যাত্রীদের অতিরিক্ত চাপ থাকায় ফেরিগুলো যানবাহন নামানো-ওঠানোতেও নানা সমস্যায় পড়ছে।

মানুষের ভিড়ে কানায় কানায় ভর্তি ফেরি। শনিবার দুপুরে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে

মানুষের ভিড়ে কানায় কানায় ভর্তি ফেরি। শনিবার দুপুরে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে

ঢাকা হয়ে গাজীপুর যাবেন বরগুনা থেকে আসা যাত্রী জুয়েল হোসেন (৪০) তিনি বলেন, ‘ভোর চারটায় রওনা করছি। ঘাটে পৌঁছালাম বেলা দুইটায়। সারা রাস্তায় কোথাও মাইলের পর মাইল হেঁটে, আবার ট্রাকে উঠে, ভ্যানে উঠে অনেক কষ্টে ঘাট পর্যন্ত আইছি। কখন ঢাকায় যাব আর কখন গাজীপুরে যাব? সকাল থেকে পানি ছাড়া কিছুই খেতেও পারি নাই। খুব কষ্ট হইতাছে। জীবন তো আর চলছে না আমাগো। এত কষ্ট করে কি আর যাওয়া যায়!’

বরিশাল থেকে চার বছরের ছোট ছেলেকে নিয়ে ঢাকায় যাচ্ছেন পোশাকশ্রমিক নাজমা আক্তার (৩৫)। চাকরি বাঁচাতে হলে তাঁকেও অন্যদের মতো আজই ঢাকায় ফিরতে হবে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘চাকরিডা না থাকলে কেউ দেখবার থাকবে না। বাঁচতে হলে মইরা-বাঁইচা য্যামনে হোক ঢাকায় ফিরতে হবে। নইলে কামডা হারাইতে হবে।’

যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় থাকায় অ্যাম্বুলেন্সগুলো ফেরিতে উঠতে গিয়ে ভয়াবহ দুর্ভোগের শিকার হয়। শনিবার বিকেলে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে

যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় থাকায় অ্যাম্বুলেন্সগুলো ফেরিতে উঠতে গিয়ে ভয়াবহ দুর্ভোগের শিকার হয়। শনিবার বিকেলে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে

১০ কিলোমিটার বেশি হেঁটে ঘাটে আসছেন আবুল কালাম (৫৫)। বরিশাল থেকে আসা এই যাত্রী বলেন, ‘বরিশাল থেকে প্রথম ১০ কিলোমিটার বেশি হাঁইটা ট্রাকে উঠছি। তিন গুণ ভাড়া দিয়া ঘাটে আইলাম। ফেরি ঘাটে নাই। মানুষ আর মানুষ অপেক্ষায় আছে। এত মানুষের মধ্যে কীভাবে ফেরিতে উঠব, সেই চিন্তায় আছি।

ট্রাক, পিকআপ তো রয়েছেনই, ঝুঁকি নিয়ে ট্রলি–ট্রাক্টরও যাত্রী নিয়ে ছুঁটে চলছে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে। শনিবার দুপুর ২টার দিকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের ভূরঘাটা বাসস্ট্যান্ড এলাকায়

ট্রাক, পিকআপ তো রয়েছেনই, ঝুঁকি নিয়ে ট্রলি–ট্রাক্টরও যাত্রী নিয়ে ছুঁটে চলছে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ফেরিঘাটে। শনিবার দুপুর ২টার দিকে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের ভূরঘাটা বাসস্ট্যান্ড এলাকায়

বিকেল চারটার দিকে বাংলাবাজার ফেরিঘাটে ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (টিআই) জামালউদ্দিন  বলেন, হাজার পেরিয়ে লাখ লাখ মানুষ পার হওয়ার জন্য এখন ঘাটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে। ফেরিতে এত মানুষের ঠেলায় একটি গাড়িও লোড দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। শিমুলিয়া থেকে খালি ফেরি আসছে আর বাংলাবাজার থেকে পুরো ভর্তি হয়ে যাত্রীরা শিমুলিয়া যাচ্ছেন। তিনি আরও বলেন, ‘যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় থাকায় ঘাটে ৪০টি অ্যাম্বুলেন্স তিন ঘণ্টা ধরে আটকা পড়ে আছে। ফেরিতে তুলতে পারছি না। এটা নিয়ে আমরা খুবই চিন্তায় আছি। রোগীদের পার করতে আমরা পারছি না। ফেরিঘাটে আসামাত্রই মানুষে ভরে যাচ্ছে। গিজগিজ করছে মানুষে। এত মানুষের চাপ থাকায় ঘাটে প্রায় ৩০০ ছোট গাড়ি, পাঁচ শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক আটকা পড়েছে। এগুলো কী করে পার হবে, তা কিছুই বলতে পারছি না।’

দয়া করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 Janatarnissash
Theme Dwonload From