বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
‘হাবিবি’ নিয়ে আসছেন নুসরাত ফারিয়া “এসো নিজেকে নিজে চিনি” পরিবার আয়োজিত বাউল গানের প্রতিযোগিতার গ্রান্ড ফিনালে ২০ অক্টোবর শুধুমাত্র অনুদানের সিনেমা দিয়েই মুখর সিনেপাড়া বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ও স্কটল্যান্ডের সম্ভাব্য একাদশ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দেখা যাবে যেসব চ্যানেলে ‘বাংলাদেশকে আমরা পাপুয়া নিউগিনির চেয়ে ওপরে দেখি না’: স্কটল্যান্ড কোচ শেন বার্জার টি ২০ বিশ্বকাপ ওমান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে আজ শুরু ইভ্যালির ওয়েবসাইট-অ্যাপ বন্ধের ঘোষণা কুমিল্লার ঘটনার পেছনের কারণ খোঁজা হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল ‘দেশ বিক্রি করে তো আমি ক্ষমতায় আসব না’ এটাই বাস্তব

পদ্মার ষড়যন্ত্রে ফেরীর ধাক্কা

ইঞ্জিনিয়ার টুটুল
  • প্রকাশ সময়ঃ রবিবার, ২৯ আগস্ট, ২০২১
  • ৮১ বার পড়া হয়েছে

পদ্মা কত ভয়ংকর নদী না দেখলে বোঝা যাবে না।পদ্মার স্রোত এতই ভয়াবহ আপনার শরীরে কাঁপন ধরিয়ে দিবেই।পদ্মার উন্মত্ততা চোখে না দেখলে বুঝবেন না এই সেতু কেন এত ব্যয়বহুল।পদ্মা সেতুর ব্যয় বৃদ্ধির অবশ্যই যুক্তিযুক্ত কারন রয়েছে।তবে হ্যা অতটা না যতটা সরকার বলছে।

গত ৮ মাসে ১১জন ভারতীয় গোয়েন্দাকে ধরা হয়েছে নির্মানাধীন পদ্মা সেতুর আশেপাশের জায়গা থেকে।যা আমাদের জন্য খুবই চিন্তার বিষয়।যা আমাদের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের উপরে মারাত্মক হুমকি।আমি আগেও বলেছি এখনও বলছি এই সরকার জালিম অত্যাচারী লুটেরা কোন সন্দেহ নাই।কিন্তু তবুও এই সরকার আমাদের।আমরা এই জালিমের শাসন মেনে নিয়েছি আরও নেব কিন্তু বাইরের কোন দেশ আমাদের বিন্দুমাত্র শাসন করবে সেটা মেনে নেওয়ার মানষিকতা বাংলাদেশের একজন মানুষের আছে বলে মনে করিনা।পদ্মা আমাদের স্বপ্নের সেতু।এর উপরে কোন আঁচ লাগুক আমরা কেউই চাই না।খরচ হচ্ছে কোন জবাবদিহিতা নেই কারও তবুও সেতু হোক।তবে সাথে ভারতীয় গোয়েন্দাদের যথাযথ বিচারও হোক।

পদ্মার পাড় দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ হাঁটাহাঁটি করলাম।কিন্তু পদ্মার ঢেউ সত্যিই আমাকে ভয় পাইয়ে দিয়েছে।লঞ্চে করে নদী পার হচ্ছিলাম।সেটা তো আরও ভয়ংকর।সামান্য কয়জন যাত্রী নিয়ে মনে হচ্ছিল লঞ্চ সামনের দিকেই যাচ্ছে না।স্রোতের তীব্রতা এতই ছিল এমনকি লঞ্চ নিয়ন্ত্রণে রাখাটাও প্রায় অসম্ভব ছিল।লঞ্চের সারেং বারবার বলছিল এভাবে লঞ্চ চালানো কোনভাবেই সম্ভব না।এই যদি হয় লঞ্চের অবস্থা ফেরী তো ফেরারি হবেই।দুইটা ফেরী আঘাত করল সেতুতে এটা নিয়ে তুলকালাম কিন্তু বাস্তবতা হল নদীতে যে পরিমান স্রোত এতে প্রায় প্রত্যেকটা ফেরীর আঘাত লাগা উচিৎ ছিল।অন্তত ফেরীর আঘাত করার সাথে কোন ষড়যন্ত্র নাই এটা আমি চোখ বন্ধ করে বিশ্বাস করতে পারি।

বিশ্বাস হচ্ছেনা আল্লাহর ওয়াস্তে গিয়ে পদ্মা নদীর অবস্থা দেখে আসেন।অনলাইনে ফাও পন্ডিতি করবেন না।আপনার আমার ফাও প্যাচাল কোটি মানুষের মনে সন্দেহ তৈরি করে।সকল ক্ষেত্রে ষড়যন্ত্র না খুজে কিছু জায়গায় ভালবাসা খুঁজেন পেয়ে যাবেন।
পদ্মা সেতু আমাদের স্বপ্নের ভালবাসার সেতু।

সূত্রঃ ইঞ্জিনিয়ার টুটুল এর ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে সংগৃহীত।

দয়া করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2021 Janatarnissash
Theme Dwonload From