মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:১১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
‘ছাইচাপা আগুন’ পেয়ে গেছে টিম আর্জেন্টিনা জনগণ সরকারকে লাল কার্ড দেখিয়ে দিয়েছে : বেগম সেলিমা রহমান পুলিশের ‘হয়রানি’ অভিযান বন্ধ করুন: আমান উল্লাহ আমান ৪৮ দলের ২০২৬ বিশ্বকাপ কেমন হবে? তামিম ইনজুরিতে, ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে অধিনায়ক লিটন দাস প্রথম দিন ৭৫ ওভারে ৫০৬ রান, নতুন বিশ্ব রেকর্ড পাকিস্তানের বিপক্ষে ইংল্যান্ডের নুহাশ হুমায়ুন এর সিনেমায় যুক্ত হলেন দুই অস্কারজয়ী ড. মাহফুজুর রহমান এর পরিকল্পনায় মজুমদার ফিল্মস এর ‘ভালোবাসি তোমায়’ ১ম লটের স্যুটিং শেষ হয়েছে মেসি একা নন, এবার তরুণরাও আর্জেন্টিনার ভরসা বিদ্যুৎ ব্যবহারে সবাইকে সাশ্রয়ী হওয়ার প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান

নাটকে খাঁচাবন্দি টিয়া পাখি দেখানোয় পরিচালকের বিরুদ্ধে ১৫ কোটির মামলা

জ.নি. ডেস্কঃ
  • প্রকাশ সময়ঃ সোমবার, ২৫ জুলাই, ২০২২
  • ১৩৭ বার পড়া হয়েছে

পরিচালক অনন্য ইমনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। তার নির্মিত নাটকে খাঁচাবন্দি টিয়া পাখি দেখানোর জন্য ১৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে এ মামলা দায়ের করেছে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের ‘বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট’।

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে অনন্য ইমন নির্মাণ করেন একক নাটক ‘শেষ গল্পটা তুমিই’। নাটকটির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন তৌসিফ মাহবুব ও তাসনিয়া ফারিন। গত ভালোবাসা দিবসে এটি টিভি চ্যানেলে প্রচার হয়। এরপর মার্চে ইউটিউবে মুক্তি পায় নাটকটি। এ নাটকে খাঁচাবন্দি টিয়া পাখি দেখানো হয়। নাটকটির ১৫ মিনিট ৭ সেকেন্ড পর দেখা যায়, তৌসিফ একটি খাঁচাবন্দি টিয়া পাখিকে খাবার দিচ্ছে আর তার মা-বোনের সঙ্গে কথা বলছে। ৪৫ সেকেন্ডের এই দৃশ্যের জন্য বিপাকে পড়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, চলতি বছরের ৫ এপ্রিল ফেসবুকের মাধ্যমে বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের নজরে আসে নাটকের দৃশ্য। মামলার নথিতে বলা হয়, ‘বন্য প্রাণীকে খাঁচাবন্দি করা, বেচাকেনা করা, প্রদর্শন করা বা এ জাতীয় অপরাধ সংঘটনে সহায়তা করা, প্ররোচনা প্রদান ইত্যাদি ‘বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইন ২০১২’ অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ। ‘সিডি চয়েস ড্রামা’ নামে ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশিত নাটকটিতে খাঁচাবন্দি বন্য প্রাণী প্রদর্শন প্রচলিত আইনে অপরাধ এবং অন্যদেরও সেই অপরাধ করতে উৎসাহিত করছে।

বন্য প্রাণী লালন-পালন প্রচারণার মাধ্যমে পরিবেশের আনুমানিক ক্ষতি ১০ কোটি টাকা, জুনোটিক ডিজিজ (একটি সংক্রামক রোগ, যা প্রাণী থেকে মানুষ বা প্রাণীতে সংক্রমিত হয়) জনিত ক্ষতি ধরা হয়েছে পাঁচ কোটি টাকা। যার মোট ক্ষতিপূরণের অঙ্ক দাঁড়ায় ১৫ কোটি টাকা।

এ নিয়ে পরিচালক অনন্য ইমন বলেন, ‘বন্য প্রাণী আইনটা পুরোপুরি আমি জানতাম না। এ কারণে অনিচ্ছাকৃত ভুলটি হয়েছে। এজন্য আমি লজ্জিত ও দুঃখিত। নাটকের চিত্রনাট্যে এমন কোনো দৃশ্য ছিল না। যে বাড়িতে শুটিং করেছি সেখানেই ছিল টিয়া পাখিটি, দৃশ্যায়নের সময় মনে হলো নায়ক কোনো একটা কাজ করতে করতে মা-বোনের সঙ্গে কথা বললে দৃশ্যটা বেশি বিশ্বাসযোগ্য মনে হবে; আর সেটা ভেবেই নায়ক পাখিকে আদর করে খাওয়াচ্ছিলেন। এটা নিয়ে আইনি ঝামেলায় পড়ে যাবো কল্পনাই করিনি।’

সূত্রঃ রাইজিং বিডি

দয়া করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2022 Janatarnissash
Theme Dwonload From