সোমবার, ১৫ অগাস্ট ২০২২, ১২:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
যে যাই ভাবুকনা কেন, চেতনাতে বঙ্গবন্ধু; “নির্মম আগস্ট” গানটি প্রসঙ্গে শিল্পী কাশেম হায়দার আদিত্য আলম মানবিক কাজের জন্য সম্মাননা পেলেন DLM লন্ডন ভিত্তিক একটি প্রতিষ্ঠানের শাপলা মিডিয়ার সেলিম খানের বিরুদ্ধে নেপথ্যে ষড়যন্ত্র যখন তেলের দাম বেশি তখন ভরসা সাইকেল টাকা ঢাললেই সিনেমা হিট হয়নাঃ সালাহ্ উদ্দিন শোয়েব চৌধুরী তিন বছর পর অভিনয়ে ফিরলেন শক্তিমান অভিনেতা আদিত‍্য আলম নতুন গানে মুন্না খান ও রাবিনা বৃষ্টি’র ‘কে বল তোকে বাসবে ভালো’ প্রথম দিনের অগ্রিম টিকেট বিক্রিতে এগিয়ে আমিরের ‘লাল সিং চাড্ডা’ মুন্না খান ও সোনিয়া লাজুকের নতুন গান “মনের মাঝে আছিস রে তুই” যশোরের মাদক ব্যবসায়ী আসিফের দৌরাত্ম্য

উইন্ডিজদের বিরুদ্ধে ৯ উইকেটের দাপুটে জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

জ.নি. ডেস্কঃ
  • প্রকাশ সময়ঃ বুধবার, ১৩ জুলাই, ২০২২
  • ৫৯ বার পড়া হয়েছে

দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি বাংলাদেশ

টেস্ট সিরিজ হার, টি-টোয়েন্টিতেও হার। নিজেদের পছন্দের সংস্করণ ওয়ানডেতে অবশ্য জয় দিয়েই শুরু করেছে বাংলাদেশ। গায়ানার প্রভিডেন্সে আজ দ্বিতীয় ওয়ানডেতেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করতে পারবে বাংলাদেশ?

এ ম্যাচে প্রথম আলোর সরাসরি আপডেতে আপনাকে স্বাগত!

টানা দ্বিতীয় ম্যাচে টসে জিতেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিম ইকবাল। ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। উইকেট কেমন আচরণ করবে, সেটি নিশ্চিত নয় বলেই এমন সিদ্ধান্ত।

তাসকিনের জায়গায় মোসাদ্দেক

তামিম বলেছেন, কন্ডিশনের কারণেই অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেনকে দলে নিতে তাসকিন আহমেদকে বাদ দেওয়ার ‘কঠিন সিদ্ধান্ত’।

মোসাদ্দেক সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিলেন গত বছরের জুলাইয়ে, জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে।

বাংলাদেশ একাদশ

তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, নাজমুল হোসেন, মাহমুদউল্লাহ, আফিফ হোসেন, নুরুল হাসান, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেন, নাসুম আহমেদ, শরীফুল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে দুই পরিবর্তন

ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে আছে দুইটি পরিবর্তন। জেইডেন সিলস ও অ্যান্ডারসন ফিলিপ বাদ পড়েছেন, দলে এসেছেন আলজারি জোসেফ ও কিমো পল।

একাদশ

নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), শাই হোপ, রোভম্যান পাওয়েল, শামার ব্রুকস, ব্রেন্ডন কিং, কাইল মায়ার্স, রোমারিও শেফার্ড, কিমো পল, গুড়াকেশ মোটি, আলজারি জোসেফ, আকিল হোসেন।

চার বছর পর দুই পেসার

মোস্তাফিজুর রহমান ও শরীফুল ইসলাম—গায়ানায় দ্বিতীয় ওয়ানডেতে বাংলাদেশ দলে আছেন দুজন স্বীকৃত পেসার। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশ দলে এ ঘটনা নিয়মিত নয় মোটেও। সর্বশেষ কোনো ওয়ানডেতে দুজন পেসার বোলিং করেছেন, বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এমন ঘটনাটি ২০১৮ সালের। আফগানিস্তানের বিপক্ষে এশিয়া কাপে আবুধাবিতে বাংলাদেশ দলে ছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও মোস্তাফিজুর রহমান।

বাংলাদেশ নামছে তাসকিন আহমেদকে বাদ দিয়ে। প্রথম ওয়ানডেতে উইকেটশূন্য থাকলেও ৮ ওভারে মাত্র ২৫ রান দিয়েছিলেন তিনি। তাসকিন এর আগে সিরিজসেরা হয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক জয়ে। তবে এবার দলে জায়গা হলো না তাঁর। টসে সময় তাসকিনের বাদ পড়াকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বলেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

মোস্তাফিজের ঘটনাবহুল ওভার

তামিম ইকবাল রিভিউ নিতে চেয়েছিলেন, তবে তার আগেই শেষ হয়ে গেছে সময়। অবশ্য রিভিউ নিলে সেটি নষ্টই হতো, কাইল মায়ার্সের প্যাডে লাগার আগে ব্যাটের কানা ছুঁয়ে গিয়েছিল মোস্তাফিজের বলটি। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারটি ছিল ঘটনাবহুল।

এরপর আউটসাইড-এজড হয়েছিলেন মায়ার্স, তবে ক্যাচটি যায়নি উইকেটকিপার নুরুল হাসানের গ্লাভস পর্যন্ত। শেষ বলে সিঙ্গেল চুরি করতে গিয়ে স্ট্রাইক প্রান্তে রান-আউট হতে ধরেছিলেন শাই হোপ। নাজমুল হোসেন সরাসরি স্টাম্প ভাঙতে পারলে ফিরেই যেতে হতো হোপকে।

এর আগে প্রথম ওভারেই অফ স্পিনার মোসাদ্দেক হোসেনকে আনেন তামিম। টার্নের দেখা পেয়েছেন তিনি। মায়ার্সের আউটসাইড-এজে একটি চারও এসেছে।

২ ওভার শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৬/০।

এক বলে ‘দুইটি’ জীবন পেলেন হোপ

মোসাদ্দেক হোসেনকে সরিয়ে মেহেদী হাসানকে মিরাজকে এনেছেন তামিম ইকবাল। আগের ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় উইকেট পেতে পারতেন দ্বিতীয় বলেই। ক্রিজ থেকে বেশ খানিকটা বের হয়ে এসে খেলতে গিয়ে মিস করেছিলেন শাই হোপ, তবে বলটা গ্লাভসে নিতে পারেননি নুরুল। বল ছাড়াই ভেঙেছেন স্টাম্প, ফলে হয়নি স্টাম্পিং।

পরে আল্ট্রা-এজে দেখা গেছে, বল লেগেছিল হোপের ব্যাটের কানায়। নুরুল নিতে পারলে হোপ হতে পারতেন কট-বিহাইন্ড। ১ বলে দুইটি আউটের সুযোগই হারালেন নুরুল, ৪ রানে জীবন পেলেন হোপ।

আগের ম্যাচে চারটি ক্যাচ ফেলেছিল বাংলাদেশ, তবে এর তিনটিই এসেছিল শেষ উইকেট জুটিতে। ওই উইকেট জুটিতে হাতছাড়া হয়েছিল রানআউটের সুযোগও। আজ বাংলাদেশ সুযোগ হারাল শুরুতেই।

৫ ওভার শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৬/০।

আগের ম্যাচে দুইটি উইকেট পেতে পারতেন নাসুম আহমেদ। তবে রিভিউয়ের কারণে শেষ পর্যন্ত পাননি। প্রথম ওয়ানডে উইকেটের অপেক্ষা বেড়েছে তাঁর।

আজ ইনিংসের অষ্টম ওভারে বোলিংয়ে এসেই আরেকটি উইকেট পেলেন নাসুম, তাঁর বলে শাই হোপকে কট বিহাইন্ড দিয়েছিলেন নাইজেল ডুগিড। তবে হোপ রিভিউ নেন সঙ্গে সঙ্গেই। আল্ট্রা-এজে স্পাইক ছিল, তবে সে শব্দ মূলত হোপের ব্যাট মাটিতে লাগার কারণে। ওই সময়ে পরিষ্কার গ্যাপ ছিল বল ও ব্যাটের মাঝে। টিভি আম্পায়ার লেজলি রেইফার অন ফিল্ডের সিদ্ধান্ত ওভারটার্ন করেছেন।

নাসুম তাই ওয়ানডেতে এখনো উইকেটশূন্য।

৮ ওভারে ২৩/০।

প্রথম পাওয়ারপ্লে শেষ

একটি রানআউট, একটি স্টাম্পিং, একটি কট-বিহাইন্ডের সুযোগ হাতছাড়া। রিভিউয়ের কারণে ফসকে যাওয়া আরেকটি উইকেট। প্রথম পাওয়ারপ্লেতে বাংলাদেশের চিত্র এমনই। এর মাঝে স্পিন আধিপত্য বিস্তার করেছে, ১০ ওভারে মাত্র ২৬ রান তুললেও অবশ্য উইকেট হারায়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

অবশেষে ব্রেকথ্রু

প্রায় প্রথম ওয়ানডেতের মতো করেই অফ স্পিনারকে ইনসাইড দ্য লাইনে খেলতে গিয়ে বল মিস করে বোল্ড হলেন কাইল মায়ার্স। এবার অবশ্য বোলার মোসাদ্দকে হোসেন। ১১তম ওভারে এসে ব্রেকথ্রু পেল বাংলাদশ। মায়ার্স ফিরেছেন ৩৬ বলে ১৭ রান করে, ২৭ রানে প্রথম উইকেট হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

অবশেষে প্রথম ওয়ানডে উইকেট নাসুমের

হাসতে হাসতে রিভিউয়ের সংকেত দেখাচ্ছিলেন নাসুম আহমেদ। এটিই আসলে বলে দেয় অনেক কিছু! রিভিউ এর আগে তিন বার প্রথম ওয়ানডে উইকেট থেকে বঞ্চিত করেছে নাসুমকে, এবার বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনার রিভিউয়ের সুযোগ রাখলেন না। শামার ব্রুকস হলেন বোল্ড!

এক বল আগে মিডউইকেট দিয়ে একটা চার মেরেছিলেন ব্রুকস, তবে এবার লাইন ধরে রাখা বলটি পুরোপুরি মিস করে গেছেন। নাসুম পেয়েছেন প্রথম ওয়ানডে উইকেট, ওয়েস্ট ইন্ডিজ হারিয়েছে ইনিংসে দ্বিতীয়টি, ৩৯ রানের মাথায়। ব্রুকস ফিরেছেন ১৩ বলে ৫ রান করে।

প্রথম ওয়ানডে উইকেটটি পেতে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়েছে নাসুম আহমেদকে। প্রথমটি পাওয়ার পর দ্বিতীয়টি পেতে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হলো না তাঁকে। আক্রমণের পথ বেছে নিয়েছিলেন হোপ, স্লগ সুইপ করতে গিয়ে খাড়া আকাশে তুলেছেন বল। শর্ট মিডউইকেট থেকে একটু পেছনে গিয়ে ক্যাচ নিতে ভুল করেননি মোসাদ্দেক হোসেন। ৫ রানের ব্যবধানে ২ উইকেট হারাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

৩ বলের মধ্যে ২ উইকেট নাসুমের

এক, দুই, তিন!

নাসুম আহমেদ পেয়ে গেলেন তৃতীয় উইকেটও! মুখোমুখি প্রথম বলেই রিভার্স সুইপ করতে গিয়েছিলেন অধিনায়ক নিকোলাস পুরান। তবে গ্লাভসে লেগে বলটি গিয়ে ভেঙেছে স্টাম্প। নাসুমকে প্রথম ওয়ানডে উইকেট পেতে অপেক্ষা করতে হয়েছিল দুই ম্যাচ মিলিয়ে প্রায় ১২ ওভার। এবার ১৪ বলের মধ্যেই পেয়ে গেলেন ৩ উইকেট!

৪৫ রানে চতুর্থ উইকেট হারিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বোলিং শেষ করলেন মোসাদ্দেক। ১০ ওভারে ৩৭ রান দিয়ে ১ উইকেট নিয়েছেন ২০২১ সালের জুলাইয়ের পর প্রথম ওয়ানডে খেলতে নামা এ অফ স্পিনার। বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেকথ্রু এনে দিয়েছেন আজ তিনি।

আগের ওভারে প্রথমবারের মতো এসেছেন শরীফুল ইসলাম। ইনিংসের মাঝপথে ৪ উইকেট হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্কোর ৬৫ রান।

এবার শরীফুলের আঘাত

আগের ওভারে বোলিংয়ে এসেছেন। পরের ওভারে উইকেটও পেয়ে গেলেন শরীফুল।

ধীরগতির উইকেটে যে শট খেলা উচিৎ নয়, সেটিই খেলতে গিয়ে ক্যাচ তুলেছেন রোভম্যান পাওয়েল। গ্রিপ করা বলটা উঠেছে মিডউইকেটে, ভুল করেননি মাহমুদউল্লাহ। ৬৯ রানেই অর্ধেক উইকেট হারিয়ে ফেলল ক্যারিবীয়রা। পাওয়েল ফিরলেন ১৯ বলে ১৩ রান করে।

মিরাজের ১ ওভারে ২ উইকেট

দিশেহারা হয়ে পড়েছে যেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ!

অনেক্ষণ ধরে ক্রিজ আঁকড়ে পড়ে থাকা ব্রেন্ডন কিং ধৈর্য ধরে রাখতে পারলেন না আর, ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে এসে খেলতে গেলেন মেহেদী হাসান মিরাজকে। যা হওয়ার, তাই হলো! মিস করে গিয়ে বোল্ড হলেন তিনি, ৪৪ বল খেলে ১৩ রান করে। ৭২ রান তুলতেই ৬ উইকেট নেই তাদের।

ঠিক পরের বলেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ হারিয়েছে আরেকটি উইকেট। ধস নামলে একটি রানআউট থাকবে, অলিখিত এ রীতি মেনে ফিরে গেলেন আকিল হোসেন। নতুন ব্যাটসম্যান কিমো পল ফাইন লেগ থেকে সিঙ্গেল চুরি করতে গিয়েছিলেন, তবে স্ট্রাইক প্রান্তে সময়মতো ফিরতে পারেননি আকিল। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে রানআউট হয়ে ফিরলেন আকিল। ৭২ রানে দাঁড়িয়ে সপ্তম উইকেটটিও হারাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

নাসুম, ১০ ওভারে ১৯ রানে ৩ উইকেট

৮ ওভারে ০/১৬।

১০ ওভারে ৩/১৯।

ওয়ানডে ক্যারিয়ারের শুরুটা মন্দ হলো না নাসুম আহমেদের! আগের দিন রিভিউয়ের কবলে পড়ে উইকেটবঞ্চিত হয়েছেন, আজও একই ভাগ্য হয়েছিল তাঁর শুরুতে। তবে এরপর নিয়েছেন ৩ উইকেট। তাঁর আঁটসাঁট লাইন লেংথ জীবন দুর্বিষহ করে তুলেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানদের।

ফিরে যেতে সময় নিচ্ছেন না উইন্ডিজ ব্যাটসম্যানরা। মিরাজকে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হলেন রোমারিও শেফার্ড। ঠিক পরের বলেই কট বিহাইন্ড আলজারি জোসেফ! অফ স্টাম্পের বাইরের বলে খোঁচা দিয়ে ফিরেছেন তিনি।

মিরাজের আগের ওভারের শেষ দুই বলে দুটি চার মেরেছিলেন কিমো পল। পরের ওভারে এসে হ্যাটট্রিকের সামনে দাঁড়িয়ে গেলেন মিরাজ! গুড়াকেশ মোতি অবশ্য আটকে দিয়েছেন হ্যাটট্রিক বলটি।

বাংলাদেশের এখনকার অবস্থা
ওয়েস্ট ইন্ডিজের ১০০

৩৪তম ওভারে এসে ১০০ পূর্ণ হলো ওয়েস্ট ইন্ডিজের। মোস্তাফিজকে, হ্যাঁ, মোস্তাফিজকেই সুইপ করে চার মেরেছেন কিমো পল।

আগের ম্যাচে শেষ উইকেট জুটিতে ইনিংসের সর্বোচ্চ রান উঠেছিল, আজ পল ও মোতির জুটিতে এখন পর্যন্ত উঠেছে ১৭ রান, এখন পর্যন্ত ইনিংসে তৃতীয় সর্বোচ্চ সেটি। ২০ রানে অপরাজিত পল, ইনিংসে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনিই।

পল ও মোতি নিশ্চিত করলেন, দেশের মাটিতে নিজেদের সর্বনিম্ন ৯৮ রানের গুটিয়ে যাওয়ার রেকর্ডটি নতুন করে গড়ছে না ক্যারিবীয়রা।

১০৮ রানেই শেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ

মিরাজের বলে এলবিডব্লু হলেন, তবে ইনসাইড-এজ হওয়াতে রিভিউ নিয়ে বেঁচে গেলেন গুড়াকেশ মোতি। ১ বল পর আবার মোতিকে এলবিডব্লু দিলেন আম্পায়ার জোয়েল উইলসন। আবার রিভিউ নিলেন মোতি, তবে এবার আর বাঁচলেন না। মিরাজ বোলিং শেষ করলেন ২৯ রানে ৪ উইকেট নিয়ে।

নিজেদের মাটিতে দ্বিতীয় সর্বনিম্ন ১০৮ রানেই গুটিয়ে গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর আগে ২০১৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে তারা অলআউট হয়েছিল ৯৮ রানে। বাংলাদেশের বিপক্ষেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের এটি দ্বিতীয় সর্বনিম্ন স্কোর।

টসে জিতে আবারও ফিল্ডিং নেন তামিম, এবার বাংলাদেশ বোলারদের সামনে আরও অসহায় হয়ে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। যদিও প্রথম উইকেট নিতে ১১তম ওভার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় বাংলাদেশকে। তবে এরপর পথ হারাতে সময় নেয়নি ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

তাসকিনের জায়গায় বাড়তি স্পিনার হিসেবে মোসাদ্দেককে খেলিয়েছে বাংলাদেশ, ২৫ ওভারের মধ্যেই নিজের ১০ ওভার শেষ করেছেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ অবশ্য গুটিয়ে গেছে ইনিংসের ১৫ ওভার বাকি থাকতেই। ১০ ওভারে মাত্র ১৯ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন নাসুম। দুই পেসার মোস্তাফিজ ও শরীফুল মিলে করেছেন মাত্র ৭ ওভার।

ওপেনিংয়ে নাজমুল

তামিম ইকবালের সঙ্গে ইনিংস ওপেন করতে এসেছেন নাজমুল হোসেন। শুরুটা সতর্কই করেছেন দুই ওপেনার। প্রথম ৩ ওভারে কোনো বাউন্ডারি আসেনি, বাংলাদেশ তুলেছে ৭ রান।

রিভিউ হারাল উইন্ডিজ

তামিম প্রথম করতে চাচ্ছিলেন রিভার্স সুইপ, তবে সফল হননি। এরপর সুইপ করতে গিয়ে ক্যাচের মতো উঠেছিল, তাতেই রিভিউ নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বল লেগেছিল তামিমের হাতে, গ্লাভসের ওপরে। ফলে রিভিউ হারিয়েছেন পুরানরা। ঠিক পরের বলেই একটা চার মেরেছেন তামিম, ইনিংসের প্রথম যেটি।

আরেকটি রিভিউ হারাল উইন্ডিজ

আগেরটি ছিল তামিম ইকবালের বিপক্ষে। এবার নাজমুল হোসেনের বিপক্ষে আরেকটি কট বিহাইন্ডের রিভিউ নিয়ে সেটি হারাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। উইকেট পেতে মরিয়া হলেও সেটির দেখা পাচ্ছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

রানের গতিও একটু বেড়েছে বাংলাদেশের, তামিম ও নাজমুল দুজনই এখন পর্যন্ত মেরেছেন দুইটি করে চার। তৃতীয় স্পিনার হিসেবে এসেছেন নিকোলাস পুরান, তবে সুবিধা করতে পারেননি। দুইটি আলগা ডেলিভারি করেছেন, দুটিতেই চার মেরেছেন নাজমুল।

উইকেট ছুড়ে এলেন নাজমুল

উইকেট চাচ্ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তবে যেভাবে আউট হলেন নাজমুল, সেটি নিশ্চয়ই তিনি চাননি। গুড়াকেশ মোতির প্রায় হাফ ট্র্যাকারটি পেছনের পায়ে ভর দিয়ে তুলে মারলেন, তবে টাইমিং করতে পারলেন না মোটেও। মিডউইকেটে সহজ ক্যাচ নিতে ভুল করেননি আকিল হোসেন। উইকেট ছুড়ে আসার আগে নাজমুল ৩৬ বল খেলে করেছেন ২০ রান। বাংলাদেশ প্রথম উইকেট হারাল ৪৮ রানে।

ক্ষণিকের জন্য দেখে মনে হতে পারে—ক্রিকেট নয়, হকি খেলছেন তামিম ইকবাল! আকিল হোসেনের বলে উচ্চতা ছিল অমনই! পড়ার পরই নিচু হয়ে যাওয়া বলটা প্রায় আঘাত করেছিল তামিমের পেছনের পায়ের বুটে, তবে সময়মতো ব্যাটটা নামাতে পেরেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। গায়ানার এ উইকেটের প্রকৃতি কেমন, সেটিও বোঝা যায় আকিলের ওই বলে।

তবে বলটা তামিমের ব্যাটে লাগার আগে দুইবার বাউন্স করেছে, নিয়ম অনুযায়ী যেটি হওয়ার কথা নো। আম্পায়ার অবশ্য নো কল করেননি।

দ্রুতই করার ইঙ্গিত লিটনদের

প্রথম ২০ বলে ২৩ রান করেছেন লিটন, মেরেছেন ৪টি চার। অন্যপাশে সতর্ক তামিম এখনো অটল আছেন। এরপর…১৮তম ওভারের শেষ বলে কিমো পলকে দারুণ এক কাভার ড্রাইভে চার মেরেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। জয়ের জন্য বাংলাদেশের প্রয়োজন মাত্র ১৬ রান।

গায়ানা নাকি বাংলাদেশ? খেলা হচ্ছে কই!

সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডে শেষে এমন প্রশ্ন উঠতেই পারে। ধীরগতির স্পিন সহায়ক উইকেটে ক্যারিবীয়রা নিজ ঘরেই পরবাসী, আর বিদেশের মাটিতে দেশের ছোঁয়া বাংলাদেশিদের! প্রায় প্রথম ওয়ানডের ধাঁচেই, আরও দাপুটে পারফরম্যান্সে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৯ উইকেটে হারিয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। এ নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বাংলাদেশ হারাল টানা ১০ ওয়ানডেতে, জিতল টানা চারটি সিরিজ।

আগের ম্যাচের মতোই গুরুত্বপূর্ণ টসটি জেতেন তামিম ইকবাল, আবারও বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। আবারও বাংলাদেশ স্পিনারদের সামনে দিশেহারা হয়ে পড়ে উইন্ডিজ ব্যাটিং লাইন আপ। আগের ম্যাচে ১৪৯ রান তুললেও এবার তারা গুটিয়ে যায় ১০৮ রানেই। পরে তামিম ইকবালের অপরাজিত ৫০ ও লিটন দাসের ২৭ বলে ৩২ রানের ইনিংসে বাংলাদেশ জিতেছে ১৭৬ বল বাকি থাকতেই।

সূত্রঃ প্রথম আলো

দয়া করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved © 2022 Janatarnissash
Theme Dwonload From